Tuesday, 16 January 2018

ব্যাংক সমন্বিত পরীক্ষা যেভাবে হওয়া উচিৎ

ইদানিং পরীক্ষার নামে খুব বেশি অরাজকটা হচ্ছে। শুধুই সস্তার তিন অবস্থা নয় আরও সমস্যা আছে তাই আগে থেকে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটিকে ফাইনান্সিয়ালি এবং ম্যানেজারিয়ালি শক্ত হতে হবে। বিপিএসসি এর মত একটা শক্তিশালী আলাদা প্রতিষ্ঠান করা যেতে পারে।

ব্যাংক সমন্বিত-পরীক্ষা জন্য সুপারিশ:
1. ৮ বিভাগীয় শহরে পরীক্ষা কেন্দ্র হবে। এতে পরীক্ষার্থীর টাকা, টাইম বাঁচবে।

2. এপ্লিকেশন ফি হিসেবে ৩০০-৫০০ টাকা নেয়া যেতে পারে।

3. ৩০-৫০ সেট প্রশ্ন করা হবে এবং সেটা পরীক্ষা শুরুর কিছু সময় সিলেক্ট করে প্রিন্ট করা হবে।

4. একই দিনে এমসিকিউ + লিখিত পরীক্ষা। যারা এমসিকিউ টেস্টে পাশ করতে পারবে না তাঁদের লিখিত পরীক্ষার খাতা দেখা হবে না।

5. ক্যাডার  চয়েস এর মত পরীক্ষার্থীরা এপ্লিকেশন করার সময় ব্যাংকের লিস্ট থেকে ,, ......... ১০ নির্বাচন করবে।  

6. পিএসসির মডেল গ্রহন করা যেতে পারে।

7. ভালো রেজাল্ট অনুযায়ী সিলেকশন করা হবে।

8. একটা ওয়েটিং লিস্ট রাখা যাতে পাশ করা ব্যাক্তিদের পরে চাকরির জন্য ডাকা যায়।

9. নন ক্যাডার এর মত ভাইবা পাশ করা বাকিদের ব্যাংকের অন্যান্য পোস্টে যেমন অফিসার (সাধারণ/ ক্যাশ) চাকরি দেয়া যেতে পারে।

### এতে করে এক পরীক্ষার্থীর বার বার ঢাকা আসা লাগবে নাএক সাথে অনেকগুলো ব্যাংকের পরীক্ষা নেয়ার কারণে এক ছাত্র/ছাত্রীকে বার বার এক্সাম দিতে হবে না।

আপনাদের মতামত? 
কমেন্টে জানান আমাদেরকে। 

0 comments:

Post a comment